রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৭:৩৮ অপরাহ্ন
add

৩ হাসপাতাল ঘুরেও চিকিৎসা পায়নি যমজ নবজাতক, লাশ নিয়ে বাবা হাইকোর্টে

রিপোটারের নাম / ৬১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর, ২০২০
add

হাসপাতাল ঘুরে ঘুরে যমজ নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় তিনটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। হাসপাতাল তিনটি হলো- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা শিশু হাসপাতাল এবং রাজধানীর মুগদা’র ইসলামিয়া হাসপাতাল। এছাড়াও জমজ শিশুর চিকিৎসা অবহেলায় বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (২ নভেম্বর) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এসব আদেশ দেন।

জমজ দুই শিশুর মৃত্যুর পর তাদের বাবা মো. আবুল কালাম আজাদ (সুপ্রিম কোর্টের এমএলএসএস) তাদের মরদেহ আদালত চত্বরে নিয়ে আসেন।

পরে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজ (সোমবার) সকালে সুপ্রিম কোর্টের এমএলএসএস মো. আবুল কালাম আজাদের স্ত্রী সায়েরা খাতুন অসুস্থবোধ করলে মুগদা হাসপাতাল নেওয়ার পথে সিএনিজির মধ্যে দুটি বাচ্চা প্রসব করেন। এসময় তারা প্রসূতিকে ইসলামিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিন্তু ইসলামিয়া হাসপাতালে এ বিষয়ে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নবজাতকদের শ্যামলীতে অবস্থিত ঢাকা শিশু হাসপাতালে নিতে বলে। পরে দুই নবজাতককে অ্যাম্বুলেন্সে করে শিশু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এদিকে শিশু হাসপাতাল আইসিইউ খালি নেই বলে জানায়। তারা বলে, নবজাতকদের সাধারণ বেডে ভর্তি করতে হবে এবং এজন্য দিনে প্রতি বাচ্চার জন্য পাঁচ হাজার করে টাকা লাগবে।’

তিনি আরও জানান, শিশু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কথা শোনার পর আবুল কালাম আজাদ হাইকোর্টের এক বিচারপতির সঙ্গে এ বিষয়ে আলাপ করেন। বিচারপতি তার নবজাতকদের বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে নিয়ে আসতে বলেন এবং পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন।

পরে আবুল কালাম তার যমজ শিশুদের বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে নিয়ে আসেন এবং পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু পরিচালকের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জানান, পরিচালক মিটিংয়ে আছেন। পরে জানানো হয়, পরিচালক বাসায় চলে গেছেন। এরপর পরিচালকের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা একজন ডাক্তারকে দিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে থাকাবস্থায় নবজাতকদের দেখান। ডাক্তার পরীক্ষা শেষে বলেন, জমজ নবজাতক আর বেঁচে নেই।

তারপর আবুল কালাম আজাদ অ্যাম্বুলেন্সে করে তাদের মরদেহ আদালতক চত্বরে নিয়ে আসেন। এরপর আদালত আদেশ দেন বলে জানান সংশ্লিষ্ট কোর্টের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৬২,৭১১,১০৮
সুস্থ
৪৩,৩৩৪,৮৩২
মৃত্যু
১,৪৬০,৭৬১