শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১০:০৮ পূর্বাহ্ন

রাষ্ট্র দখলের অপচেষ্টা করেছিলেন মামুনুল!

রিপোটারের নাম / ৫১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১
add

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক রাজনৈতিক ক্ষমতা লাভের জন্য রাষ্ট্র, সরকার ও ইসলামকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছেন। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে মামুনুলকে জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়ে নিজ কার্যালয়ে ব্রিফিংয়ে ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) হারুন অর রশিদ এ কথা বলেন।

এ সময় ডিসি হারুন অর রশিদ আরও বলেন, উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে মাদরাসার কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঠে নিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখলের অপচেষ্টা করেছিলেন মামুনুল। তাবলীগের সাদপন্থীদের মারধরের কথাও জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন তিনি। ওয়াজ মাহফিলে জোশের কারণে বিশিষ্ট নাগরিকদের মানহানিকর বক্তব্য দিয়েছেন বলেও স্বীকার করেছেন এই হেফাজত নেতা।

এর আগে নারায়ণগঞ্জের সহিংসতা মামলায় মামুনুল হককে গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমাণ্ডের আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন সিআইডি প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান। দুপুরে সিআইডি প্রধানের নিজ কার্যালয়ে হেফাজত তাণ্ডবের ঘটনায় হওয়া মামলার তদন্তভার গ্রহণের বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, পাঁচটি জেলার ২৩ টি নাশকতার মামলা তদন্ত করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। ইতোমধ্যে আমরা একটি মামলায় হেফাজত নেতা মামুনুল হকের সুস্পষ্ট সংশ্লিষ্টতা পেয়েছি।

তিনি বলেন, হত্যা, বিস্ফোরণ ও নাশকতার অভিযোগে মামলাগুলো হয়েছে। তিনটি বিষয় সামনে রেখে আমরা তদন্ত করছি। প্রথমত যারা উপস্থিত ছিলেন, দ্বিতীয়ত যারা ইন্ধন যুগিয়েছে আর যারা দুষ্কর্ম্মে সহায়তা করেছে। এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জের একটি মামলায় তার সংশ্লিষ্টতা দেখতে পেয়েছি আমরা। তবে আমরা মাত্র মামলাগুলোর তদন্তভার নিয়েছি। তদন্ত শেষে আমরা আরও বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারবো।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি আরও বলেন, আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান। কারো চেহারা দেখে আমরা তদন্ত করছি না। আমাদের তদন্তে যা আসবে সে অনুযায়ীই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সিআইডি প্রধান বলেন, আমাদের ভালো তদন্ত ব্যবস্থা আছে, আমরা সব সামর্থ এক করে এ ঘটনার তদন্ত করবো।

সিআইডির ২৩টি মামলার মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ১৫টি, নারায়ণগঞ্জে ২টি, কিশোরগঞ্জে ২টি, চট্রগ্রামে ২টি ও মুন্সিগঞ্জে ২টি মামলা রয়েছে।

এর আগে রবিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে মামুনুল হককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাকে ২০২০ সালের একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে ঢাকার সিএমএম আদালতে মামুনুল হককে হাজির রিমান্ড চাইলে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারী সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশের ওপর হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মামুনুল হককে প্রধান করে ৮৩ জনের নাম উল্লেখ এবং ৫০০ থেকে ৬০০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত ৬ এপ্রিল রাতে সোনারগাঁ থানায় পুলিশ বাদি হয়ে দুটি ও একজন সাংবাদিক বাদি হয়ে একটি মামলা করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ