শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১১:৪০ পূর্বাহ্ন

রওশন-এরশাদকে নিয়ে জাপানেতা জিতুর আবেগী স্ট্যাটাস

রিপোটারের নাম / ২৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১ মে, ২০২১
add

সাবেক প্রেসিডেন্ট জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদকে নিয়ে জাপানেতা আজমল হোসেন জিতুর আবেগী ফেসবুক পোস্ট তুলে ধরা হলো।

প্রাপকঃ ডেইজি বা ডেজুমনি (রওশন এরশাদ) এর ঠিকানায় চিঠি বা পত্র আর আসেনা প্রেরকঃ পেয়ারা পাগল সাথী (পল্লীবন্ধু এরশাদ) এরঃ—-

হ্যা,
এভাবেই প্রিয় স্ত্রী রওশনকে পত্র লিখতেন চাকুরির সুবাদে এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্তে ঘুরে বেড়ানো ইতিহাসের পাতায় স্হান করে নেওয়া বাংলাদেশের সাবেক সেনাপ্রধান ও সফল রাষ্ট্রপতি মরহুম পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।
১৯৫৬ সালে ১৩ বছর বয়সী বেগম রওশন এরশাদ (ডেইজি)কে বিয়ে করেছিলেন ২৬ বছর বয়সী সেনা কর্মকর্তা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। অবাক করা একটি বিষয় কি আপনি জানেন? সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু
এরশাদ এবং রওশন এরশাদের একটি ডাক নাম আছে যা অনেকেরই অজানা। এরশাদের ডাক নাম (পেয়ারা) ও রওশনের ডাক নাম (ডেইজি)।
বিয়ের পরই কিন্তু তাদের সংসার জীবন শুরু হয়নি। সেনা কর্মকর্তা স্বামী এরশাদ
কে চাকরিতে এখানে সেখানে থাকতে হয়।আর পড়াশুনার জন্য স্ত্রী রওশন এরশাদ কে এক বছর থাকতে হয় বাবার বাড়ি ময়মনসিংহে ।
এ বিষয়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলতেন, ‘নিজের বিয়ের পর সংসার করার জন্য এক বছর অপেক্ষা করতে হয়েছিল আমাকে। রওশন ওদের বাড়িতে থেকে পড়াশোনা করছিল। চাকরির জন্য আমি আজ এখানে কাল ওখানে। সে সময় দূরে থাকা স্বামীরা স্ত্রীদের কাছে চিঠি পাঠাতো। আমিও তার ব্যতিক্রম ছিলাম না। বহু চিঠি লিখেছি; চিঠির প্রথমে রওশনকে অনেক ভাবে ‘সম্বোধন’ করতাম।’
পঞ্চাশের দশকের মাঝামাঝি বিয়ে। এর উপর আবার দূরে থাকায় খুব মন খারাপ
হতো সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদের। তাই স্ত্রী (রওশন)কে প্রচুর চিঠি লিখতেন তিনি। চিঠিতে তিনি স্ত্রী (রওশন) কে সম্বোধন করতেন ‘হৃদয়ের রানী’ ‘হৃদয়ের ধন’ ‘ওগো মোর জীবন সাথী’ ‘খুশি বউ’ ‘খুশি পাগলী’ ‘সোনা বউ’ ‘খুকু বউ’ ‘ওগো দুষ্টু মেয়ে’ ‘নটি গার্ল’ ‘বিরহিনী’ ইত্যাদি অবিধায়।
স্ত্রী(রওশন)’র ডাক নাম ডেইজি হওয়ায় ভালবেসে ডাকতেন ডেজু, ডেজুমনি, ডেজুরানী। চিঠির শেষে নিজের পরিচয় লিখতেন ‘পেয়ারা পাগল সাথী’ ‘বড্ড একাকী একজন’ ‘প্রেম-পূজারি’ ‘বিরহী’ ইত্যাদি। ৬২ বছরের সংসার জীবন।
প্রয়াত হয়েছেন স্বামী পল্লীবন্ধু এরশাদ। আর তাঁর রেখে যাওয়া সেই ভালবাসার ডেইজি (রওশন) আজ অসুস্থ হয়ে বিছানায়।
কিন্তু কেউ পত্র লেখেনি- কেমন আছো ডেইজি (রওশন) বলে।
সম্প্রতি অসুস্থ রওশন এরশাদের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দোয়া চেয়ে পোস্ট দিতে দেখা গেছে জাতীয় পার্টির সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ