শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৪:৫৭ অপরাহ্ন

যে কারণে হৃতিকের কথা প্রতিদিন মনে পড়ে প্রিয়াঙ্কার

রিপোটারের নাম / ৪২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
add

হৃতিক রোশন একজন দুর্দান্ত অভিনেতাই নন; অসাধারণ এক মানবিক হিসেবেও বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে প্রতিষ্ঠিত। অনেকবারেই তার এই মানবিক ভূমিকা নিয়ে প্রশংসা করেছেন সহকর্মীরা। এবার হৃতিকের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও প্রশংসা করলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

এবার নিজের বই ‘আনফিনিশড’ এ প্রিয়াঙ্কা তুলে ধরলেন হৃতিকের সঙ্গে ঘটে যাওয়া তার পরিবারের এক স্পর্শকাতর ঘটনার কথা।

স্মৃতিচারণমূলক সেই বইয়ে প্রিয়াঙ্কা লেখেন, ২০০৬ সালে ‘কৃশ’ সিনেমার শুটিং চলাকালীন একটি ঘটনা। তখন বলিউডে সবেমাত্র পা রেখেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। শুটিং চলছিলো; তখনই খবর আসে প্রিয়াঙ্কার বাবা অশোক চোপড়া অত্যন্ত অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তার শারীরিক অবস্থা দিনের পর দিন খারাপের দিকে গেলে ভারতের বাইরে নিয়ে চিকিৎসার প্রয়োজন ছিলো।

কিন্তু প্রিয়াঙ্কার পুরো পরিবার তখন ছিলো ভারতের বাইরে। হৃতিক বিষয়টি জানতে পারেন। সেসময় হৃতিক ও তার বাবা রাকেশ রোশন তাৎক্ষণিক এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের জন্য এয়ার ইন্ডিয়ার সঙ্গে কথা বলেন। আর সেই দিনেই ড. অশোক চোপড়াকে চিকিৎসার জন্য লন্ডন পাঠান তিনি। এর কয়েক দিন পরেই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে দেশে ফেরেন প্রিয়াঙ্কার বাবা। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে বন্ধুর চেয়েও বেশি আন্তরিকতা দেখানো হৃতিকের এই উপকার কখনও ভুলবেন না দাবি করেন প্রিয়াঙ্কা। তিনি লিখেন ‘ঘটনাটি আমার প্রতিদিন মনে পড়ে।’

হৃত্বিকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে প্রিয়াঙ্কা আরও লেখেন, আমাদের চারপাশে এমন মানুষ হয়তো খুব বেশি থাকে না যারা নিজেদের কথা চিন্তা না করে আপনার জন্য এগিয়ে আসবে। হৃতিক এবং তার বাবা রাকেশ স্যারের কাছে আমি আজীবন কৃতজ্ঞ থাকব। আমি সারা জীবন ধন্যবাদ জানিয়েও সেই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে পারব না। জানান সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ