শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১১:৩৭ পূর্বাহ্ন

মুখ্যমন্ত্রী হওয়া নিয়ে মমতার আরেক পরীক্ষা

রিপোটারের নাম / ৪৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ৩ মে, ২০২১
add

বিধানসভা নির্বাচনে বড় জয় পেলো তৃণমূল কংগ্রেস। দলটির সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কারিশমায় টানা তৃতীয়বারের মতো পশ্চিমবঙ্গের মসনদে যাওয়া নিশ্চিত হলো দলটির। এ বিজয় দলের নেতাকর্মীদের জন্য অবশ্যই অশেষ আনন্দের। কিন্তু দলের খোদ নেত্রীকে নিয়েই এখন তাদের কপালে ভাঁজ পড়ছে। এমন আনন্দের দিনে তাদের মাঝে একটাই উদ্বেগময় প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে, তাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের আসন নন্দীগ্রামে হেরে যাওয়ার পর কি মুখ্যমন্ত্রী হতে পারবেন?

রবিবার (২ মে) সন্ধ্যার পর ফল নিয়ে অনেক নাটকীয়তার পর দেখা যায়, নন্দীগ্রামে নিজের আসনে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেরই একসময়ের শিষ্য ও খুবই ঘনিষ্ঠ দলত্যাগী নেতা শুভেন্দুর কাছে হেরে গেছেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার তারা ভাবছেন, দল সরকার গঠন করলে মমতা কি মুখ্যমন্ত্রী হতে পারবেন?

ভারতীয় সংবিধানের ১৬৩ ও ১৬৪ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, কোনো রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হতে হলে তাকে দেশের নাগরিক হতে হবে এবং বয়স হতে হবে ২৫ বা তার বেশি। তাকে রাজ্যের বিধানসভার সদস্য হতে হবে। বিধানসভার সদস্য না হয়েও কেউ যদি মুখ্যমন্ত্রী পদে বসেন, রাজ্যপালের অনুমতি লাগবে। কেউ হেরে যাওয়ার পরও তার দল যদি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় এবং দলের নির্বাচিত সদস্যরা যদি তাকে নেতা নির্বাচিত করেন, তাহলে আইনগতভাবে তার মুখ্যমন্ত্রী হতে বাধা নেই। ভোটে না জিতেও মুখ্যমন্ত্রী হলে তাকে ওই পদে বসার ১৮০ দিনের মধ্যে কোনো একটি আসন থেকে জিতে আসতে হবে। তবে এ ক্ষেত্রে সফল না হলে অবশ্যই তাকে পদত্যাগ করতে হবে।

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভার ২৯৪ আসনের মধ্যে দুটির ভোটগ্রহণ প্রার্থীর মৃত্যুতে স্থগিত রয়েছে। ফলে এর একটি আসনে ছয় মাসের মধ্যে জিতে এলেই মমতার মুশকিল আসান হতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ