শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:২৫ পূর্বাহ্ন
add

পেঁয়াজের বাজারে আসছে অশনি সংকেত!

রিপোটারের নাম / ৩৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
add

দেশে পেঁয়াজ নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড ঘটে যাওয়ার বছর না পেরুতেই অশনি সংকেত দেখা যাচ্ছে। বাজারে হু হু করে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। দু-তিনদিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ২০ টাকা পর্যন্ত বেড়ে গেছে। পার্শবর্তী দেশ ভারতে পেঁয়াজের দাম বাড়ায় দেশের বাজারেও দাম বেড়েছে। ইতোমধ্যে পেঁয়াজের এক ধরনের কৃত্রিম সংকট তৈরি হয়েছে বাজারে। এই সংকট উত্তরণে আজ বাণিজ্য সচিবের নেতৃত্বে বৈঠকে বসবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। সংশ্লিষ্ট সূত্র এসব তথ্য জানিয়েছে।

সূত্র জানায়, ভারতে পেঁয়াজের দাম বাড়ার খবরেই দেশের বাজারে বাড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী পেঁয়াজ মজুতও শুরু করেছেন। এ কারণে বাজারে পেঁয়াজের সংকট তৈরি হচ্ছে। সহসা এই সংকট নিরসন করতে না পারলে করোনাকালে চরম বিপাকে পড়বেন সাধারণ মানুষ। রাজধানীর পেঁয়াজের বড় আড়ত শ্যামবাজারে দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৫০ টাকা। যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০ টাকা। আর আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৪০-৪১ টাকা। আর খুচরা বাজারে দেশি পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০-৬৫ টাকায়। মাত্র ৩ দিনের ব্যবধানে খুচরা বাজারে দেশি পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ২০ টাকা পর্যন্ত।

আমদানিকারকরা বলছেন, ভারতে দাম বাড়ার খবর শুনলে অনেকেই দেশে দাম বাড়িয়ে দেন। যার কারণে সহজেই একটা সংকট তৈরি হয়। বর্তমানে প্রতি টন ভারতীয় পেঁয়াজ ৩০০ ডলারে এসেসমেন্ট হচ্ছে। যদিও ভারতে ১৮০ ডলারেও মিলে পেঁয়াজ। পেঁয়াজের সংকটের আরেকটি প্রধান কারণ হলো, বর্ডার সিন্ডিকেট। ভারতে পেঁয়াজের দাম কেজিতে ৫ টাকা বাড়লে বর্ডার এলাকায় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী দেশে ১০ টাকা বাড়িয়ে দেয়। যার প্রভাব পড়ে বাজারে।
পেঁয়াজের দাম বাড়ার বিষয়ে রাজধানীর বৃহৎ পাইকারি আড়ত শ্যামবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. মাজেদ ভোরের কাগজকে বলেন, ভারতে দাম বাড়ায় দেশেও বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। কিন্তু ভিন্নমত পেঁয়াজের আরেক বৃহৎ বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ

সহিদ উল্লা মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. ইদ্রিসের। তিনি ভোরের কাগজকে বলেন, ভারতে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে এটা ঠিক। তবে ভারতে ৪-৫ টাকা বেড়েছে দেশের বাজারে সে তুলনায় অনেক বেশি বেড়ে গেছে। এই কারণে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং আরো জোরদার করতে হবে। প্রয়োজনে অভিযান চালাতে হবে। কারণ কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর কারণে ভালো ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করতে পারছে না। আর পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে আরেকটি কারণ হলো বর্ডার সিন্ডিকেট। খাতুনগঞ্জের আরেক ব্যবসায়ী নেতা সোলেমান বাদশা ভোরের কাগজকে বলেন, ভারতে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণে মূলত দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে।

রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) বলছে, পেঁয়াজের সংকট মোকাবিলায় সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। চলতি মাসেই ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করবে টিসিবি। এ বিষয়ে টিসিবির মুখপাত্র হুমায়ুন কবির ভোরের কাগজকে বলেন, পেঁয়াজের কোনো সংকট তৈরি হবে না। বাজারের সরবরাহ ঠিক রাখতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। চলতি মাস থেকেই টিসিবি খোলাবাজারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করবে।

সূত্র জানায়, গত দুদিনে অস্বাভাবিকভাবে পেঁয়াজের দাম বাড়াতে নড়েচড়ে বসেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। বাজার নিয়ন্ত্রণে করণীয় নির্ধারণে আজ রবিবার বৈঠক করবে মন্ত্রণালয়। বাণিজ্য সচিবের নেতৃত্বে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত থাকবেন। আগের তিক্ত অভিজ্ঞতার পুনরাবৃত্তি চায় না বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। পেঁয়াজ নিয়ে যাতে কোনো ধরনের কারসাজি না হয় সে বিষয়ে নজরদারি বাড়াবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে কনজুমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সভাপতি গোলাম রহমান ভোরের কাগজকে বলেন, সরবরাহ কমে গেলে অথবা আমদানিমূল্য বাড়লে দাম বাড়বে। কিন্তু এর পেছনে কারো কারসাজি আছে কিনা খুঁজে দেখতে হবে। ভারতে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণে দেশের বাজারে দাম বেড়েছে। বন্যায় ভারতের পেঁয়াজের ক্ষতি হয়েছে। তাদের চাহিদা মেটাতে ভারত যদি পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের মতো কোনো সিদ্ধান্ত না নেয়, সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে। দুদেশের মধ্যে এ বিষয়ে আলোচনা অব্যাহত রাখতে হবে। সর্বোপরি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং আরো জোরদার করতে হবে ।।সূত্র খবর ভোরের কাগজ।।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩২,৩৯৪,৭৯৩
সুস্থ
২৩,৯০৪,৭০৬
মৃত্যু
৯৮৭,০৬৬