শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন

ক্যান্সারে আক্রান্ত বাঙলা কলেজের শিক্ষার্থী হ্যাপি বাঁচতে চান

রিপোটারের নাম / ৬৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১
হ্যাপি খানমকে বাঁচাতে মানবিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন
add

স্টাফরিপোটারঃ ক্যান্সারে আক্রান্ত সরকারি বাঙলা কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী হ্যাপি খানম বাঁচতে চান। বাংলা বিভাগের ৩য় বর্ষের (২০১৭-২০১৮ সেশনের) এ শিক্ষার্থী ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ক্যান্সারে আক্রান্ত হ্যাপির বাড়ি বরিশাল বিভাগের উজিরপুরে। মেধাবী শিক্ষার্থী হ্যাপি খানম রোগাক্রান্ত হওয়ায় তার পরিবার, সহপাঠী, ও শিক্ষকদের মাঝে নেমেছে বিষাদের ছায়া। তার জন্য দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন তার স্বজন ও সহপাঠীরা। হ্যাপি খানমের চিকিৎসার জন্য তাকে দ্রুত অপারেশন করাতে হবে বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসকরা। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) রাতে বাংলা কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী হ্যাপি ও তার পরিবারের সাথে এ প্রতিবেদকের কথা হয়। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত একবছর আগে অসুস্থ হলে ঢাকার শেরে বাংলা নগর মা ও শিশু হাসপাতালে ডাক্তার উসমান গণির অধীনে চিকিৎসা নিয়েছিলেন। যদিও পরিবারের দাবি ডাক্তার উসমান গণির করা ভুল চিকিৎসার কারণেই হ্যাপি খানমের ডিম্বাণুতে জটিল ধরনের ক্যান্সারের সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, ডাক্তার উসমান গণির চিকিৎসা করার পরেও অনেক বার অসুস্থ হয়েছিলো হ্যাপি। কিন্তু ডাক্তার উসমান গণি পরীক্ষা নিরিক্ষা করে সুস্থ বলেন। কিন্তু হ্যাপির শরীরের অবনতি দেখে আরও ডাক্তার দেখালে গত ১৪ এপ্রিল রিপোর্টে ধরা পড়ে মরণব্যধি ক্যান্সার। হ্যাপির সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে প্রতিবেদককে তিনি বলেন, আমার জন্য দোয়া করবেন যাতে আমার অপারেশনটা ভালোভাবে হয়। আমি সব টেস্ট করিয়েছি। আমার সব টেস্টের ফল আগামীকাল দিবে। আমার কেমোথেরাপি জন্য অনেক টাকা প্রয়োজন। আমি দু’টি কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করেছি তারা অপেক্ষা করতে বলেছে। কিন্তু আমার চিকিৎসা আগামী এক সাপ্তাহের মধ্যে শেষ করতে হবে। বারবার বলছিলেন আমার জন্য দোয়া করবেন আপনারা। হ্যাপির সহপাঠীরা জানায়, বর্তমানে মেডিসিন কাজ করছে না। এ কারণে মেডিসিন বন্ধ রয়েছে। তবে প্রায়ই জ্ঞান হারাচ্ছে হ্যাপি। তার দ্রুত চিকিৎসার জন্য ১২টি থেরাপি ও বিভিন্ন অপারেশন বাবদ প্রায় ৫-৬ লাখ টাকার প্রয়োজন। চিকিৎসা সহায়তার জন্য সবার কাছে অনুরোধ জানিয়েছে পরিবার ও সহপাঠীরা। হ্যাপিকে সাহায্য করতে চাইলে বিকাশের মাধ্যমে পাঠানো যাবে টাকা। এছাড়াও মোকারম হোসেন হৃদয়, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লি., গুলশান-২, এসি: ২০৫০১৭৭০২০৩৫১৬৯০৮ ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমেও পাঠানো যাবে টাকা। বিকাশ-০১৭৪৬৭৬৭৬৮৩।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ