শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন
add

এসব জিনিসও ভাইরাসমুক্ত রাখুন

রিপোটারের নাম / ২২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই, ২০২০
add

চলমান কোভিড-১৯ মহামারিতে সচেতন মানুষেরা যতটুকু সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার চেষ্টা করছেন। তারা কোভিড-১৯ সৃষ্টিকারী করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে ফেস মাস্ক ব্যবহার করছেন, বারবার সাবান-পানিতে হাত ধুচ্ছেন ও দরজার হাতলের মতো বহুল ব্যবহৃত জিনিসকে ভাইরাসমুক্ত করছেন। কিন্তু এমনও কিছু জিনিস রয়েছে যাকে ভাইরাসমুক্ত করার প্রয়োজন মনে করেন না, কিন্তু এসবের মাধ্যমেও একজন সুস্থ মানুষ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারেন। এখানে তেমন পাঁচটি জিনিস উল্লেখ করা হলো।

চশমা: বিশেষজ্ঞদের মতে, চোখে করোনাভাইরাস প্রবেশ করলেও সংক্রমণ হতে পারে। কিন্তু যারা চশমা পরেন তাদের সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি কম। করোনাভাইরাস উড়ে এসে চশমায় লেগে থাকে, ফলে চোখে প্রবেশ করতে পারে না। তবে বাইরে থেকে ঘরে এসে চশমাকে ভাইরাসমুক্ত করা প্রয়োজন, নাহলে এতে লেগে থাকা ভাইরাস অন্যকোনো উপায়ে শরীরে প্রবেশ করতে পারে। চশমাকে ভাইরাসমুক্ত করতে প্রথমে গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এরপর আঙুলের ডগায় এক-দুই ফোঁটা ডিশ সোপ নিয়ে চশমার লেন্স ও অন্যান্য অংশকে ফেনায়িত করুন। এবার আবারও গরম পানিতে ধুয়ে নিন। একটি পরিষ্কার কটন কাপড় দিয়ে চশমা মুছে ফেলুন।

চাবি: আপনার চাবিও করোনাভাইরাস বহন করে নিয়ে আসতে পারে। তাই ঘরে এসে চাবিকেও ভাইরাসমুক্ত করে নেয়া প্রয়োজন। চাবির ভাইরাস ধ্বংস করতে ডিসইনফেক্টিং ওয়াইপ দিয়ে মুছে নিতে পারেন অথবা চাবির ওপর জীবাণুনাশক তরল ছিটাতে পারেন। কি ফবকে ভাইরাসমুক্ত করার সময় সতর্ক থাকুন। কি ফবের ব্যাটারিতে যেন জীবাণুনাশক তরল অথবা রাবিং অ্যালকোহল না লাগে। এরপর কি ফবকে বাতাসে শুকিয়ে নিন। আপনার চাবির গোছা থেকে অপ্রয়োজনীয় চাবি সরিয়ে ড্রয়ারে রেখে দিতে পারেন।

ডেবিট কার্ড/ক্রেডিট কার্ড: ভাইরাস মহামারিতে উন্মুক্ত যেকোনো জিনিসই ভাইরাসের সংস্পর্শে আসতে পারে, ডেবিট কার্ড অথবা ক্রেডিট কার্ডও এর ব্যতিক্রম নয়। আপনি এসব কার্ড ব্যবহার করে থাকলে লাইজল বা ক্লোরক্স ওয়াইপ অথবা ডিসইনফেক্ট্যান্ট স্প্রে দিয়ে ভাইরাসমুক্ত করতে ভুলবেন না।

ওয়ালেট/পার্স: ওয়ালেট বা পার্সকে বহুল ব্যবহৃত জিনিসের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা যায়। কিন্তু তা সত্ত্বেও অনেকে এগুলোকে ভাইরাসমুক্ত করার প্রয়োজন অনুভব করেন না। কিন্তু সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে ওয়ালেট বা পার্সকেও ভাইরাসমুক্ত করা গুরুত্বপূর্ণ। চামড়ার ওয়ালেট অথবা ব্যাগকে ভাইরাসমুক্ত করতে গরম পানি ও ডিশ সোপের সল্যুশন ব্যবহার করতে পারেন। এই সল্যুশনে একটি পরিষ্কার কাপড় ভিজিয়ে ওয়ালেট বা ব্যাগ মুছে নিন। এরপর কেবল পরিষ্কার পানিতে কাপড় ভিজিয়ে মুছে নিন।

স্টিয়ারিং হুইল: গবেষণায় দেখা গেছে, করোনাভাইরাস স্টিয়ারিং হুইলে ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত সক্রিয় থাকতে পারে। তাই বাড়ি ফিরে ডিসইনফেক্টিং ওয়াইপ দিয়ে স্টিয়ারিং হুইল মুছে নেয়া গুরুত্বপূর্ণ। লাইজল বা ক্লোরক্স ওয়াইপ দিয়ে গাড়ির হাতলও মুছে নিন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩২,৩৯৪,৭৩৪
সুস্থ
২৩,৯০৪,৬৯৪
মৃত্যু
৯৮৭,০৬২