বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১১:২২ পূর্বাহ্ন

অলিম্পিকের মশাল বহন করছেন না ১১৮ বছর বয়সী তানাকা

রিপোটারের নাম / ৪৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৯ মে, ২০২১
টোকিও-অলিম্পিকের-মশাল-বহন-করার-কথা-ছিল-১১৮-বছর-বয়সী-কেন-তানাকা
টোকিও-অলিম্পিকের-মশাল-বহন-করার-কথা-ছিল-১১৮-বছর-বয়সী-কেন-তানাকা
add

করোনার ভয়ে কাঁপছে সারা দুনিয়া। দিনকে দিন দেশে দেশে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। করোনার কারণে ২০২০ সালের অলিস্পিক ২০২১ সালে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। টোকিও অলিম্পিকের মশাল বহন করার কথা ছিল ১১৮ বছর বয়সী জাপানি নারী তানাকার। আর তিনি যদি মশাল বহন করতেন তাহলে অলিম্পিকের ইতিহাসে সবচেয়ে প্রবীণ ব্যক্তি হিসেবে বিশ্ব রেকর্ড গড়তেন। কিন্তু মশাল বহন থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তানাকা।

বিশ্বের সবচেয়ে প্রবীণ ব্যক্তি তানাকা থাকেন একটি নার্সিংহোমে। আর তিনি জানিয়েছেন যেহেতু তিনি নার্সিংহোমে থাকেন তাই তিনি অলিম্পিকের মশাল বহন করতে বাইরে এসে যদি করোনাভাইরাস আক্রান্ত হন তাহলে তার সঙ্গে থাকা নার্সিংহোমের অন্য ব্যক্তিরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যেতে পারেন। আর তাই তিনি চান না তার কারণে বিপদে পড়ুক তার নার্সিংহোমের বন্ধুবান্ধবরা। ফলে তিনি নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

এদিকে, মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন’র প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, কানে তানাকা দু’বার ক্যান্সার থেকে রক্ষা পেয়েছেন। এই নারী দুটি বৈশ্বিক মহামারি দেখেছেন। এ বছর ফুকুওকার অলিম্পিকে তিনিই মশাল নিয়ে যাবেন। কথা ছিল তানাকার পরিবার তার ১০০ মিটারের হুইলচেয়ারে করে এরপর তিনি মশাল হাতে পায়ে হেঁটে স্পটে পৌঁছাবেন।

তার ষাট বছর বয়সি নাতি ইইজি তানাকা গণমাধ্যমকে ওই সময় বলেছিলেন, কানে তানাকা এই বয়সেও সক্রিয় জীবনযাপন করছেন। এটা খুবই দুর্দান্ত বিষয়। আমরা চাই অন্যরাও যেন তাকে দেখে অনুপ্রাণিত হন। কেউ যেন বয়সকে কখনো কোনো বাধা মনে না করেন।

বর্তমানে অলিম্পিকে সবচেয়ে বেশি বয়সে মশাল বহনকারী ব্যক্তি হলেন অ্যইডা গেম্যানক। ২০১৬ সালে ১০৬ বছর বয়সী অ্যাইডা গেম্যানক রিও অলিম্পিকের মশাল বহন করেছিলেন।

তানাকা যদি এবার টোকিও অলিম্পিক মশাল বহন করতেন তাহলে তিনি ব্রাজিলের সেই ব্যক্তির গড়া বিশ্ব রেকর্ড ভেঙে ফেলতে পারতেন। কিন্তু করোনাভাইরাস ও নিজের বন্ধু-বান্ধবদের কথা ভেবে ইতিহাসের সাক্ষী হওয়া থেকেও নিজেকে সরিয়ে ফেলেছেন তানাকা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ